বাংলাদেশ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের পূর্বাঞ্চলে চলছে মাদকের ভয়াবহ বিস্তার!

বেগমগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের পূর্বাঞ্চলের ১৬নং কাদিরপুর গ্রামের ৯নং ওয়ার্ডে দীর্ঘদিন যাবত চলছে গাজা, মাদক এবং ইয়াবা ট্যাবলেটের ভয়াবহ বিস্তার! পার্শ্ববর্তী সেনবাগ উপজেলার সীমান্তবর্তী হওয়ায় মাদকের ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন সময় প্রশাসনের বিভিন্ন অভিযানে সেনবাগের ৯নং নবিপুর ইউ,পির দেবিসিংপুর, গোপালপুর গ্রামে অপরাধিরা আশ্রয় গ্রহন করে। এই অঞ্চলে মাদক ব্যবসার ডিলার হিসেবে ২০১৩ সাল থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে ১. সামিম হোসেন (৩৩) পিতা মৃতঃ গোলাম সারোয়ার ২. নূরজাহান বেগম(৬৫) স্বামীঃ মৃতঃ গোলাম সারোয়ার ৩. সেলিম উদ্দিন (৩৬)পিতা মৃতঃ গোলাম সারোয়ার ৪. স্বপন (৩০) পিতা ঐ। ৫. মোছাঃ মিম স্বামীঃ সামিম হোসেন।

উল্লেখিত ব্যক্তিবর্গ দীর্ঘদিন যাবত চট্টগ্রাম শহরের পাহাড়তলী, একে খান, মাষ্টার পাড়া, নিমতলী এলাকায় প্রায় দুইযুগ যাবত মাদকের ব্যবসা করে আসছে। ঢাকা শহরের যাত্রাবাড়ী, কদমতলী থানা এবং কখনো টঙ্গী থানা এলাকায় ইয়াবা ট্যাবলেটের ব্যবসা করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে চট্টগ্রাম, ঢাকা ও কুমিল্লা এলাকায় খুন, অস্ত্র ব্যবসা ও মাদকের মামলায় সামিম হোসেন, তার ভাই স্বপন জেল খেটেছেন। কিন্তু মাদকের মুল সম্রাজ্ঞী তাদের মাতা নূরজাহান বেগমের গ্রেফতার হওয়ার কোন সংবাদ পাওয়া যায়নি। সামিম এবং স্বপন বর্তমানে কোর্টের জামিনে আছে।

ঢাকা এবং চট্টগ্রামের প্রশাসনের চোখের আড়ালে নিজ গ্রাম কাদিরপুরে ২০১৩ সাল থেকে নতুন করে তাদের মাদক ব্যবসার কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। তাদের মাদকের প্রভাবে উক্ত গ্রামের যুবসমাজ মাদক সেবন এবং ব্যবসার প্রতি অধিক হারে ঝুকে পড়েছে। বিভিন্ন সময়ে মাদকাসক্ত ব্যক্তিবর্গ পরিবারে ঝগড়া বিবাদ মারামারি নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। এই মাদক ব্যবসায়ি পরিবার মাদক বিক্রি অব্যাহত রাখার জন্য বিভিন্ন কৌশলের আশ্র্য় গ্রহন করে। তারই অংশ হিসেবে গত ইদুল ফিতর উপলক্ষে স্থানিয় মসজিদে এক লক্ষ টাকা অনুদান দিতে চায় এবং ১৫ হাজার টাকা মসজিদের ক্যাসিয়ার মোঃ হক সাহেবকে প্রদান করে।

মসজিদ কমিটি স্থানিয় আলেম মাওলানা ইয়াকুব সাহেবের মতামত নিয়ে মাদক ব্যবসায়িদের ঐ এক লক্ষ টাকা মসজিদে গ্রহন না করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রদত্ত ১৫ হাজার টাকা ফিরত দেয়। তাদের মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রতিবেশি রিগান, আবু, রাসেল সহ অন্যান্যরা জীবন নিয়ে হুমকির মুখে রয়েছে। বিগত ২২ জুন বিকেল বেলা মাদক ব্যবসায়ি সামিম, সেলিম সহ অন্যান্যরা দেশি, বিদেশী ভারী অস্ত্র নিয়ে রিগান কে প্রাণ নাশের হুমকি দেয় এবং তার এক বছরের শিশু সন্তানকে অপহরনের চেষ্টা করে। পরিবারের লোকজনের বাধার মুখে অপহরন করতে ব্যর্থ হয়।

এলাকার সর্বস্তরের জনগন এই মাদকের হোতা পরিবারের সকল অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে বিচারে প্রশাসনের সার্বিক সহায়তা কামনা করছে অন্যথায় যুব সমাজের চরিত্র রক্ষা করা সম্ভব নয়।

Facebook Comments

Related Posts